Become a member

Get the best offers and updates relating to Liberty Case News.

― Advertisement ―

spot_img

থেকে যাওনা গো

হাসপাতালের বেডে পাশাপাশি শুয়ে দুই বৃদ্ধ ও বৃদ্ধা। বৃদ্ধের উদ্দেশ্যে লেখা শেষ কবিত  থেকে যাও না গো, আর কটা দিন! না হয় আমাদের বয়স হয়ছে অনেক, তোমার আশি,...
Homeরাজনীতি‘গোপাল ভাঁড়কে খুনের চক্রান্ত করেন কৃষ্ণচন্দ্র’! দাবি মন্ত্রী উজ্জ্বলের, আইনি ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি...

‘গোপাল ভাঁড়কে খুনের চক্রান্ত করেন কৃষ্ণচন্দ্র’! দাবি মন্ত্রী উজ্জ্বলের, আইনি ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি অমৃতার

রাজপরিবারের সদস্যা অমৃতা রায়কে লোকসভায় বিজেপি প্রার্থী করার পর থেকেই ক্রমশ ইতিহাসাশ্রয়ী হয়ে উঠছে কৃষ্ণনগর কেন্দ্রের ভোটের লড়াই। সেই সূত্র ধরে এ বার কৃষ্ণনগরের রাজনীতির আঙিনায় চলে এল গোপাল ভাঁড়ের প্রসঙ্গও। রাজ্যের মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস দাবি করলেন, গোপাল ভাঁড়কে হত্যা করেছিলেন রাজা কৃষ্ণচন্দ্র রায়! পাল্টা উজ্জ্বলকে প্রমাণ দাখিলের দাবি তুলে বিজেপি প্রার্থী অমৃতা জানান, প্রয়োজনে আইনি পথে যেতে পারেন।

কৃষ্ণনগরে গোপাল ভাঁড় মেলার উদ্বোধনে রাজ্যের মন্ত্রী উজ্জ্বল বলেন, ‘‘আমাদের গোপাল ভাঁড়কে হত্যা করার জন্য কে সব থেকে বেশি চক্রান্ত করেছিলেন, কে দায়িত্ব নিয়েছিলেন? তিনি হচ্ছেন আমাদের এই রাজা। তাঁর সব থেকে বড় কৃতিত্ব, যাঁরা তাঁকে সুনাম এনে দিলেন, সেই রাজা আমাদের গোপাল ভাঁড়কে হত্যা করেছিলেন। সবাই এটা ভাল করে জানে। সুতরাং, আমাদের দুর্নাম যদি কেউ করে থাকেন, তিনি আমাদের কৃষ্ণনগরের রাজা।’’

উজ্জ্বলের এই দাবির পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী তথা কৃষ্ণনগরের রাজপরিবারের সদস্যা অমৃতা। তিনি বলেন, ‘‘উজ্জ্বল বিশ্বাস কী জানেন, আমার জানা নেই। তিনি গায়ের জোরে কিছু যদি বলেন, তা হলে আমার কিছু করার নেই। ওঁর হাতে প্রমাণ থাকলে, তা বার করে সবাইকে দেখাতে পারেন। আমি যত দূর জানি, এ সব কিছু হয়নি। আমি নিশ্চয়ই আমার পরিবার নিয়ে ওঁর চেয়ে বেশি ওয়াকিবহাল হব। এখন ওঁরা কৃষ্ণচন্দ্রকে ছেড়ে গোপাল ভাঁড়কে নিয়ে পড়েছেন। আমি চ্যালেঞ্জ করছি, প্রমাণ দেখান। আমি তো উজ্জ্বল বিশ্বাসের পরিবার নিয়ে কিছু বলছি না বা নোংরামি করছি না। পরিবার নিয়ে উল্টোপাল্টা কথা বলা মানহানির সমতুল। আমি ইচ্ছে করলে আইনি পথও নিতে পারি।’’মন্ত্রী উজ্জ্বলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল । সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে উজ্জ্বল বলেন, ‘‘এটা তো সবাই জানে যে, গোপাল ভাঁড়ের মৃত্যু নিয়ে একটা কথ্য ইতিহাস আছে। আমি বলেছি, তাঁর মৃত্যু ঘিরে অনেক অস্বাভাবিকতা আছে। তাঁর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করে, তাঁকে হত্যা করা হয়েছিল।’’ উজ্জ্বলকে তার পরেই প্রশ্ন করা হয়, এই হত্যার সঙ্গে রাজা কৃষ্ণচন্দ্র কি কোনও ভাবে যুক্ত ছিলেন বলে মনে করেন? জবাবে উজ্জ্বল বলেন, ‘‘আমি তো তাই মনে করি।’’

সত্যিই কি গোপালের মৃত্যুর পিছনে রাজা কৃষ্ণচন্দ্রের হাত ছিল? কী বলে ইতিহাস? ইতিহাসবিদ রজত রায় বলেন, ‘‘এর কোনও ঐতিহাসিক ভিত্তি আছে বলে আমি অন্তত কোথাও পাইনি। আমার মনে হয়, এটা উদ্ভাবিত এবং সেটাও খুব বেশি দিন আগের নয়।’’ আর ইতিহাসবিদ গৌতম ভদ্র বলছেন, ‘‘গোপালকে ষড়যন্ত্র করে রাজা কৃষ্ণচন্দ্র মেরেছিলেন, এমন কোনও তথ্য আমার জানা নেই। কৃষ্ণচন্দ্রের সময় গোপাল ভাঁড় নামে কোনও চরিত্রেরই উল্লেখ পাওয়া যায় না। গোপাল ভাঁড়ের সাহিত্যে আগমন উনিশ শতক থেকে। এখন রাজনীতির গরুকে গাছে তোলার কর্মকাণ্ড চলছে, তাই অনেক কিছুই বলা হচ্ছে।’’